২০১৬ সালে মেহেরপুর জেলাকে খুলনা বিভাগের প্রথম বাল্যবিবাহ মুক্ত ঘোষনা করা হয়



মেহেরপুরকে বাল্যবিবাহ মুক্ত জেলা ঘোষনা করলেন মন্ত্রী পরিষদ সচিব মোহাম্মদ শফিউল আলম। শনিবার দুপুরে মেহেরপুর স্টেডিয়াম মাঠে বাল্যবিবাহ মুক্ত জেলা ঘোষনা উপলক্ষে জেলা প্রশাসনের আয়োজনে অনুষ্ঠিত গণসমাবেশে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত থেকে তিনি এ বাল্যবিবাহ মুক্ত জেলা ঘোষনা করেন এবং উপস্থিত সকলবে শপথ করান।
জেলা প্রশাসক মো: শফিকুল ইসলামের সভাপতিত্বে গণসমাবেশে বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন মেহেরপুর-২ আসনের (গাংনী) সংসদ সদস্য মকবুল হোসেন, সংরক্ষিত নারী সংসদ সদস্য বেগম সেলিনা আখতার বানু, মন্ত্রী পরিষদ বিভাগের (সমন্বয় ও সংস্কার বিষয়ক) ভারপ্রাপ্ত সচিব এন এম জিয়াউল আলম, খুলনা বিভাগীয় কমিশনার আব্দুস সামাদ, প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ের মহাপরিচালক আব্দুল হালিম, সেভ দ্য চিলড্রেনের কান্ট্রি ডিরেক্টর টিম হুয়াইট, মেহেরপুর পুলিশ সুপার হামিদুল আলম, জেলা পরিষদের প্রশাসক অ্যাড. মিয়াজান আলী, মেহেরপুর পৌর মেয়র মোতাচ্ছিম বিল্লাহ মতু।
গণসমাবেশে অন্যদের মধ্যে বক্তব্য রাখেন, সদর উপজেলা চেয়ারম্যান ও জেলা আইনজীবী সমিতির সভাপতি অ্যাড. মারুফ আহমেদ বিজন, মেহেরপুর সরকারী মহিলা কলেজের ভারপ্রাপ্ত অধ্যক্ষ প্রফেসর আসাফ উদ দৌলা, জেলা আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক এম এ খালেক,
জেলা মুক্তিযোদ্ধা কমান্ডার বশির আহমেদ, জেলা ট্রাক মালিক গ্রুপের সভাপতি গোলাম রসুল, সাংবাদিক রফিকুল আলম, জেলা মহিলা সংস্থার সভানেত্রী শামিম আরা হীরা প্রমুখ। এর আগে জাতীয় সঙ্গীত পরিবেশনের মধ্যে দিয়ে অনুষ্ঠান শুরু হয়। অনুষ্ঠানের শুরুত পবিত্র ধর্মগ্রন্থ থেকে পাঠ করা হয়।

অনুষ্ঠান শেষে ‘১৮ বছরের আগে মেয়েদের এবং ২১ বছরের আগে ছেলেদের বিয়ে নয়’ বিষয়ক একটি মনোজ্ঞ ডিসপ্লে প্রদর্শন করা হয়। ডিসপ্লে প্রদর্শন শেষে মন্ত্রি পরিষদ সচিব মেহেরপুর জেলাকে বাল্যবিাহ মুক্ত ঘোষনা পত্র পাঠ করেন এবং উপস্থিত সর্বস্তরের মানুষকে শপথ পাঠ করান। গণসমাবেশে শিক্ষক, শিক্ষার্থী, অভিভাবক, রাজনীতিবিদ, কাজী, ইমাম, সাংবাদিক সহ সর্বস্তরের প্রায় দশ হাজার মানুষ অংশগ্রহণ করেন।
প্রসঙ্গত, জেলা প্রশাসক শফিকুল ইসলামের নেতৃত্বে প্রশাসনের সকল কর্মকর্তা গত ৬ মাস ধরে ‘যেখানেই বাল্যবিবাহ সেখানেই প্রতিরোধ’ শ্লোগানে জেলাকে বাল্য বিবাহ মুক্ত জেলা ঘোষনার লক্ষ্যে আন্দোলন চালিয়ে যাচ্ছেন। এরই অংশ হিসেবে বাল্যবিাবাহের ঘটনায় ভ্রাম্যমান আদালত পরিচালনা করে জেল জরিমনা করেন। বাল্যবিবাহের ঝুকিমুক্ত পরিবার বাছাই করে তাদের ছেলে মেয়েদের লেখাপড়া চালিয়ে নেয়ার জন্য ছাগল বিতরণ করেন এবং সহজ শর্তে ঋণের ব্যবস্থা গ্রহণ করেছেন।

Share this:

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন

 
Copyright © মেহেরপুর ২৪. Designed by OddThemes