মাছ চাষে বিপ্লব ঘটিয়েছে গাংনীর ষোল টাকা ইউনিয়ন



‘মাছে ভাতে বাঙালি’এই প্রবাদটা পুরোপুরি মিলে যাবে মেহেরপুর জেলার গাংনী উপজেলার ষোল টাকা ইউনিয়নের ষোলটাকা,জুগিরঘোপা ও বানিয়াপুকুর  মৎস্য গ্রামের সাথে। মাছ চাষে বিপ্লব ঘটিয়েছেন এইসকল গ্রামের মানুষ। মাছ চাষ করেই নিজেদের স্বাবলম্বী করার পাশাপাশি জেলায় আমিষের চাহিদা মেটাচ্ছেন তারা। ষোল টাকা ইউনিয়নের  প্রায় সবাই মাছ চাষ করেন। যার কারণে প্রান্তিক পর্যাযে বিভিন্ন ধান চাষের ওপর র্নিভরশীলতা অনেকাংশে কমে গেছে।
শনিবার দুপুরে সরেজমিনে ষোল টাকা গ্রাম ঘুরে দেখা গেছে, এ গ্রামের সব বাড়িতেই রয়েছে ছোট বড় পুকুর। এক সময়ের পরিত্যক্ত জমিতে তৈরি করা এসব পুকুরে চলছে বাণিজ্যিকভাবে মাছ চাষ।
দেখা যায়, পুকুরে মাছের খাবার দিচ্ছেন মাছ চাষিরা আর লাফালাফি করছে রুই-কাতলা। এই মাছ চাষ করেই আর্থিকভাবে সচ্ছল হয়েছে এখানকার প্রতিটি পরিবার। ষোল টাকা গ্রামের মাছ চাষি মানজারুল ইসলাম জানান, এই ষোল টাকা ইউনিয়নের প্রায় ২৩শ’ পুকুর রয়েছে।




জোড় পুকুরিয়া মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের সহকারী প্রধান শিক্ষক ও পুকুর মালিক আনিছুর রহমান জানান, ষোল টাকা ইউনিয়নে অনেক খাল-বিল-পুকুর রয়েছে। আশপাশের গ্রামের পুকুরে পানি চৈত্র মাসে শুকিয়ে যায়। কিন্তু ষোল টাকা গ্রামের পানি বার মাসই থাকে। কখনও শুকোয় না। যার কারণে এ গ্রামের শত ভাগ মানুষ পুকুরে মাছে চাষ করেন। অনেকে ধানি জমিতে পুকুর করে মাছের চাষ করছেন। আর এ থেকে গ্রামের নাম হয়ে যায় ষোল টাকা মৎস্য গ্রাম।
তিনি জানান, আগে তিনি শুধু শিক্ষকতা করতেন। পরে সবার দেখাদেখি মাছের চাষ শুরু করেন। মাছ চাষ করে এ গ্রামের সবাই স্বাবলম্বী।ষোল টাকা মৎস্য  ইউনিয়নে প্রায় ২৩শ পুকুর রয়েছে।


মাছ চাষি আফজাল জানান, এ গ্রামের সব বাড়িতে পুকুর রয়েছে। সেসব পুকুরে রুই, কাতলা, পাঙ্গাসসহ সব ধরনের সাদা মাছের চাষ করা হয়। এসব মাছ জেলার চাহিদা মিটিয়ে দেশের বিভিন্ন স্থানের পাইকাররা এসে নিয়ে যান। এ গ্রামে মাছের চাষ বেশি। আর সেই মাছের খাবারের চাহিদা মেটাতে এখানে ৪টি মৎস্য খাবার উৎপাদন মিল তৈরি করা হয়েছে।
গাংনী উপজেলা মৎস্য অফিসার আবুল কালম আজাদ বলেন, এ অঞ্চলের মৎস্য গ্রাম হিসেবে পরিচিত ষোল টাকা, বানিয়পুকুরিয়া ও জুগিরগোফা গ্রাম। মাছ চাষ করেই এসব গ্রামের শত ভাগ মানুষ স্বাবলম্বী হয়েছে। ঢাকা, চট্টগ্রাম, খুলনাসহ দেশের বিভিন্ন জেলায় এখানকার মাছ যায়। আমরা সরকারি ভাবে এসব গ্রামে মাছ চাষিদের সার্বিক ভাবে সহযোগিতা করছি এবং মাছ চাষিদের পরামর্শ দিয়ে চলেছি।
 https://www.facebook.com/MeherpurDistrictBD/videos/1396705393749851/?t

Share this:

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন

 
Copyright © মেহেরপুর ২৪. Designed by OddThemes